কৌষিকী দাশগুপ্ত

অগণিত অগণন 

 

আমি

দলিত নই,

আদিম নই,

উদাস নই,

বাউল নই,

কৃষক নই,

মজুর নই,

শ্রাবণ নই,

 

আমি মানুষ।

 

একটা মানুষের হৃদয় বুকে নিয়ে আলোকতাড়িত

শহরের বুকে ঘুরে বেড়াই আরেকটা মানুষের খোঁজে।

আপনার মতো আমিও ‘ প্রান্তিক’ হয়ে বেঁচে আছি বৃত্তের কাছে, বৃত্তের পাশে।

 

সংজ্ঞাটা বদলে নিন, অভিমান সরিয়ে নিন,  দেখবেন আপনি

আর আমি শহর থেকে জঙ্গলে,  জঙ্গল থেকে শহরে,

মানুষ খুঁজে চলেছি। একজন ভালোবাসার মানুষ

পেলে পৃথিবীর সমস্ত লোভ আমরা বর্জন করতে পারি।

 

সংগ্রামের দিনে, বিপ্লবের দিনে আমি থাকব না আপনার পাশে।

 

ঝান্ডা হাতে মিছিলে হাঁটব না, বলব না, সঙ্গে আছি।

আপনাকে নিয়ে থিসিস লেখার, কবিতা লেখারও

কোনো ইচ্ছে নেই আমার। আপনি আপনি, আমি

আমি। আপনি আকাশ, আমি ক্যামেলিয়া। আপনি

নদী, আমি কলকাতা। আপনি দামাল, আমি লোরিয়েল।

 

একদিন চিৎকার থেমে যাবে। মাও থেকে মার্কস

সবাই ঘুমোবে, তুমুল বৃষ্টি হবে…..

সেদিন যদি ইচ্ছে করে ডাকবেন আমাকে।

একজন মানুষ আরেকজন মানুষকে যেভাবে ডাকে,

যেভাবে কাছে পেতে চায়, সেভাবেই ডাকবেন মাটিতে , গভীরে, অনন্তে।

 

আসব আমি। আপনিও আসবেন। গয়না  খুলে,

তাবিজখুলে, পতাকা খুলে, শ্লোগান খুলে, ইতিহাস খুলে, অতীত খুলে,

নিজেকে খুলে রেখে

 

দুজন মানুষ

নতুন বৃত্তে, নতুন বলয়ে

অলীক বৃষ্টির দিনে ,

 

মানুষের পৃথিবীতে।