নাসিম-এ-আলম

এক রোহিঙ্গা যুবক যে ভাষায় কবিতা লিখেছিল

 

মাঝি ঘাটে নৌকা বেঁধেছিল, নৌকা দুলছে

এটুকু দেখার পর চিরস্থায়ী বিদায় নেবার কাল

প্রাচীর দিয়েছে যারা তারাই মুখাগ্নি করে

আর কোনও দাহ নেই, শুধু বুকে করে বইছি স্বদেশ

 

শৈশবে যা যা ছিল, সত্য নয় মেনে নিতে হবে

একসাথে হুটোপুটি, ভাই-বোন বন্ধু স্বজন—মিথ্যে

ফুটবল খেলার মাঠ, বিকেলের মেঘ কার আসা—মিথ্যে

অমলতাস হলুদের আভাস—মিথ্যে

সত্য শুধু না থাকাটুকু, সত্য শূন্য—মাটি

আর কোনও সত্য নেই দীর্ঘশ্বাস, মা বলে ডুকরে ওঠা,

 

পায়ের তলায় ঘাস, ইস্কুলের ঘণ্টাধ্বনি

সমাপ্তির পর কিছুই দেখিনি, শুধু বৃষ্টি অবিরাম

সমাপ্তির পর দেখার ছিল না কিছু অন্ধকার ছাড়া

অন্ধকার হাতড়ে হাতড়ে হামাগুড়ি দেওয়া

কেউ জানে না কতটুকু যেতে হবে, কোথায় বা খুঁজে পাবে মাটি ।