গৌতম রায়

এ ডাকের নাম নদীত্ব 

 

তুমি ভূগোলের দিদিমনি

রোজ চকে চকে যে ভূগোল আঁকো

তাতে একটি নদী বয়ে যায়

আমাদের চেনা নদী

অথচ অন্য দিনের থেকে আলাদা

একটি জীবন

অচেনা চমক রেখে  যায়

তার পাড়ে বসো তুমি

আমাকেও দিয়েছো স্থান

এ নদী আমি তুমি থেকে আমরা হলে

একটি মহানদী বয়ে যায়

 

আমি বৃথাই মাপতে বসি জল

গভীরতা অতল

তুমি অমলিমায় বসে

দিচ্ছো চায়ে চুমুক

রিংটোন বেজে গেলো

ধরলে না স্রোত

বইছো অন্য খাতে

কোলকে জবা  অপরাজিতা বিনিময়

 

এবার থিতু

নিজেই দিলে ডাক

এ ডাকের নাম বহতা

এ ডাকের নাম নদীত্ব

এ ডাকের নাম ভালোবাসা

 

এপারে বসেও

বাড়ালাম

হৃদভর্তি হাত