প্রতিমা রায়বিশ্বাস

স্বপ্নাশয়

আমার ব্যক্তিগত শ্বাস  বইছে এখন বহুদূর, 

অস্পষ্ট, অচেনা বিছানায়। 

এদিকে  স্বপ্নের উড়ন্ত আমি তোমার হাতে হাত রেখে বললাম 

চলো ঘুরে আসি শহর, নগর, প্রান্তর। 

দৃষ্টি ফেলে কিনে নিই স্থাবর অস্থাবর, জীব জড় নিঃসৃত সব রঙ। 

দেখো আর কিছু নয়। দিন ফেলা স্মৃতিই সম্পদ। 

বুঝতে পারি ওদিকে আমার থিতানো স্পর্শের উপর 

এখন অন্য বায়ুর চলাচল। 

বুঝতে পারি নিভিয়ে দিচ্ছো  আমার  বিগত বন্দিত লুকোনো কয়েকটি  দিন। 

বুঝতে পারি ও কপাল জুড়ে বিন্যস্ত  চুম্বন-ফুলের বাগানে প্রজাপতি অন্য  কেউ।

এদিকে মুঠি খুলে দেখি আমার এ হাতের জেদী একটি রেখা 

তোমার হৃদয়রেখা ছুঁয়ে ছুঁয়ে…

বুকের উপর রোম রোম  বিভাজনে। 

অরণ্য মায়ায় ক্লান্তিহীন রোমন্থন। 

দেখো শরীরের মত মনেরও ক্ষিদে তিনবেলা। 

তোমার কথা খেয়ে বেঁচে আছে দীর্ঘকাল। 

তোমার প্রতিটি উচ্চারণ 

একি…অদৃশ্য তরল। 

জিওল মাছের মত এ মনে তার….অতি অত্যাবশ্যকতা।