নিত্যানন্দ দত্ত

উদ্বাস্তু 

 

জালের গা থেকে আঁশ ছাড়িয়ে ফেলছে জেলে

গত জন্মের হত্যার সমস্ত প্রমান মুছে ফেলছে নিঃশব্দে

তার পিঠের আদরচিহ্নে ঝলমল করছে সকালের আলো

হোগলা পাতার ছোট্ট দোকানে চায়ের জল চাপিয়েছে আনসার ভাই

দুজন দেবশিশু একমনে রচনা করছে বালির ঘর দুয়ার, হৈ চৈ ইস্কুল বাড়ি

 

তাদের খেলাঘরে এইমাত্র রান্না চেপেছে মিছিমিছি

রান্নার সুমিষ্ট ঝাঁঝ নিকটের ঝাউবনে লুকোচুরি খেলতে গেছে

আচমকা উচ্ছেদের শমন নিয়ে দুয়ারে হাজির হয়েছে জল

সেই উত্তাল ঝড়ের মুখে খড়কুটোর মতো উড়ে যায় ঘর

দুটি ক্ষুদ্র মানুষ আঁকড়ে থাকে… আঁকড়ে থাকে…