কার্তিক ঢক্

মহা-জীবনের ঘোড়া

 

 

নদীটি শুকিয়ে যাবে বলে

দু’চোখে সারাদিন সমুদ্রকে ফেলেছে!

হয়তো, মহা-জীবনের ঘোড়ার পায়ের শব্দ

শুনেছে সে ঠান্ডা বালিয়াড়িতে …

 

এমনই এক আগুন যখন ছেঁকা দ্যায়

বুকের গভীরে –

থরথর কেঁপে ওঠে গাছ।

 

অথচ, প্রতিটি মৃত্যুই মেনে নিতে হয়

এর ভিতরে কোনও নাস্তিকতা নেই !

 

তবু আমার মাটির ভিতরে কম্পন

শাখা-প্রশাখাকে ফেলে যাওয়ার শব্দে

যে গোধূলি আসে, তাকে কী দুঃস্বপ্ন বলে !

যন্ত্রণা বলে ? শ্বাশত মৌনতা বলে…