পলাশ পরব

কবিতা আশ্রম-এর পলাশ পরব একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎসব। প্রতিবছর দোলের দিন এই উৎসব পালিত হয় কোনো পলাশ জঙ্গলে। গাছ যেহেতু সভ্যতা তথা জীবজগতের মূল ভিত্তি, গাছ ছাড়া এ পৃথিবীকে ধ্বংসের হাত থেকে কেউ বাঁচতে পারবে না, প্রতিমুহূর্তে বৃক্ষছেদন করে আমরা এক প্রকার আত্মহত্যার পথকেই তরান্বিত করছি, মৃত্যুকে ডেকে আনছি নিজের ঘরে, সেহেতু বৃক্ষপূজার মধ্য দিয়েই সূচনা হয় আমাদের পলাশ পরবের। পুকুর বা নদী থেকে কলসি করে জল তুলে আনা হয়। দুই দিকে সারিবদ্ধভাবে চলে বাহানৃত্য। গাছ ও ফুলকে আহ্বান করতে করতে আসা হয় পলাশ গাছের কাছে। গোড়ায় জল দিয়ে অনুমতি চাওয়া হয় উৎসবের। তারপর পরস্পরকে আবির মাখিয়ে শুরু হয় পরবের। থাকে নানা লোকনৃত্য, লোকগান, নাটক, কবিতাপাঠ। ভালোবেসে স্থানীয় দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়ানো। বাচ্চাদের দেওয়া হয় বই, খাতা, স্কুলব্যাগ, কলম ইত্যাদি। স্থানীয় মানুষের সঙ্গে আআড্ডার মেজাজে আলোচনা করা হয় প্রকৃতিকে বাঁচানোর উপায়। রঙে, গানে, নাচে, হৃদ্যতায় জড়িয়ে বাঁচার আনন্দে মুখর হয়ে ওঠে পলাশ পরব।

ফাইলচিত্র

পলাশ পরব ১৪২৫

পলাশ পরব ১৪২৩

Share this